গাড়ি চালানোর তেল নেই, এশিয়া কাপ আয়োজন ছেড়ে দিল শ্রীলঙ্কা

0
54
ছবি: সংগৃহীত

সারাবেলা রিপোর্ট: ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে খেলে ২ মিলিয়ন ইউএস ডলার আয় করায় এশিয়া কাপ নিয়ে আশায় বুক বেঁধেছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু বাস্তবতার কাছে হার মানতেই হলো তাদের। স্বীকার করে নিতে হলো, নিজেরা এবার এশিয়া কাপ আয়োজন করতে পারছে না। ২৭ আগস্ট থেকে ১১ সেপ্টেম্বর আসরটি আরব আমিরাতের দুবাই আর শারজাহতেই হবে।

গত সপ্তাহে কলম্বোয় এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের মিটিং শেষেই ভেন্যু পরিবর্তনের সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছে। কিন্তু যে শ্রীলঙ্কা দু’দিন আগেও এশিয়া কাপ আয়োজনে আত্মবিশ্বাসী ছিল, হঠাৎ কী এমন হলো যে, সেখান থেকে তাদের সরে আসতে হলো?

উত্তর দিতে গিয়ে দেশের চলমান জ্বালানি সংকটেরই ইঙ্গিত দিয়েছেন লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা। জানিয়েছেন, এশিয়া কাপ আয়োজন করতে হলে ছয়টি দলের জন্য অন্তত বারোটি টিম বাসের দরকার পড়বে। সেই সঙ্গে তাদের ক্রিকেট কিটস বহনের জন্য প্রয়োজন বাড়তি গাড়ির।

এ ছাড়া ম্যাচ অফিসিয়ালস, ব্রডকাস্টারদের জন্যও একাধিক গাড়ির ব্যবস্থা করতে হবে। এত গাড়ির জন্য যে জ্বালানি তেলের দরকার, তা এ মুহূর্তে সরবরাহ করা তাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং, ‘আমাদের এখানে এখন জ্বালানি তেলের সংকট চলছে। এ অবস্থায় এশিয়া কাপ আয়োজন করতে গেলে অনেকগুলো গাড়ির প্রয়োজন পড়বে। সেই গাড়িগুলোর জন্য জ্বালানি সরবরাহ নিশ্চিত করাটা সত্যিকার অর্থেই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং।’

ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ আয়োজন করাটা সেভাবে কঠিন ছিল না শ্রীলঙ্কার জন্য। কেননা সব ম্যাচই তারা গলে আয়োজন করেছে এবং দ্বিপক্ষীয় সিরিজ হওয়ায় গাড়ির সংখ্যাও কম লেগেছে। কিন্তু এশিয়া কাপের মতো মাল্টিন্যাশনাল টুর্নামেন্টে সেটা কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

তাছাড়া এশিয়া কাপে ভারত-পাকিস্তানের মতো ক্রিকেটের লোভনীয় ম্যাচে দর্শকও আসবে অনেক। সেসব বিদেশি দর্শকের জন্যও প্রচুর ট্রান্সপোর্টের প্রয়োজন পড়বে, যা কিনা এ মুহূর্তে লঙ্কান ক্রিকেটের পক্ষে জোগান দেওয়া সম্ভব নয়। ‘আমাদের এখানে যে অবস্থা চলছে, তাতে বিদেশি দর্শক এসে খুশি হবেন না। সবকিছু বিবেচনা করেই আমাদের সরে আসতে হয়েছে।’

এশিয়া কাপ শ্রীলঙ্কা থেকে সরে আসার সিদ্ধান্তটি শুক্রবার (২২ জুলাই) আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করার কথা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের। অতীতে উপমহাদেশের যে কোনো ক্রিকেট আসর আয়োজনের সমস্যা দেখা দিলেই এগিয়ে এসেছে আরব আমিরাত। এবারও তারাই আয়োজনের আগ্রহ দেখিয়েছে।

গত পাঁচ বছরে এ নিয়ে দুটি এশিয়া কাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে আরব আমিরাত। সর্বশেষ ২০১৮ সালে ওয়ানডে ফরম্যাটের এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হয়েছিল সেখানে। এবার অবশ্য এশিয়া কাপ টি২০ ফরম্যাটে হবে। বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান অংশগ্রহণ করছে এবারের টুর্নামেন্টে। তাদের সঙ্গে হংকং, আরব আমিরাত, নেপাল কিংবা ওমানের কোনো দুটি দল অংশ নেবে।

আজসারাবেলা/সংবাদ/জাই/খেলাধুলা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here