৫ উইকেট চলে গেল বাংলাদেশের ৪০ মিনিট এর মধ্যেই

0
45
ছবি: সংগৃহীত

সারাবেলা ডেস্ক: মাঝে মুমিনুল হক আউট হতে যা একটু বেশি সময় নিয়েছেন। এই গরমে মাঝে ২১ বলে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যান উইকেট দিয়ে আসেননি, এ এক ‘অর্জন’ বটে!

অধিনায়কের এমন ‘লড়াই’ বাদ দিলে মিরপুরের গরমে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ড্রেসিংরুমের ঠান্ডায় ফেরার তাড়নাই দেখা গেল শুধু। টেস্টের প্রথম দিনের ৪০ মিনিট যেতে না যেতেই বাংলাদেশের পাঁচ উইকেট নেই! এই প্রতিবেদন লেখার সময়ে ১১ ওভারে ৫ উইকেটে ৩২ রান বাংলাদেশের। ক্রিজে আছেন লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম।

পাঁচে নামা মুশফিক এরই মধ্যে ম্যাচে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে দুই অঙ্কে পৌঁছে গেছেন। লিটন এসে প্রথম বলেই রাজিতার হ্যাটট্রিক না ঠেকালে আরেক কাব্যও লিখতে হতো।

প্রচণ্ড গরমে মিরপুরের গ্যালারিতে থাকা দর্শকদের এমন হতাশাজনক ব্যাটিংয়ের সাক্ষী হওয়ার শুরু দিনের দ্বিতীয় বল থেকেই। কাসুন রাজিতার বল মাহমুদুল হাসানের ব্যাট আর প্যাডের ফাঁক গলে স্টাম্পে। রাজিতার বলে তেমন সুইং ছিল না, কিন্তু এমন সুইংই দলের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানের ব্যাট আর প্যাডের ফাঁক খুঁজে নেওয়া হতাশারই বটে।

মাহমুদুলের মতো কোনো রান না তুলে বিদায় তামিম ইকবালেরও। ইনিংসের বয়স তখন দশ বল। আসিতা ফার্নান্দোর বলটা লেগ সাইডে খেলতে চেয়েছিলেন, ব্যাট ছিল তাঁর গায়ের অনেক সামনে। ব্যাটের নিয়ন্ত্রণ না থাকলে ভাগ্যের সহায়তাই বাঁচাতে পারে, তা-ও ছিল না তামিমের। ব্যাটের সামনের দিকে লেগে বল আকাশে, জয়াবিক্রমার হাতে ক্যাচ।

দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানের কেউ রান পাননি, ৬ রানে ২ উইকেট নেই বাংলাদেশের। ভালো শুরু বটে! ঝামেলাটা হলো, সেটি শ্রীলঙ্কার।

এরপর অধিনায়ক মুমিনুলের ‘লড়াই!’ তিনে নামা নাজমুল হাসানের সঙ্গে চারে নামা মুমিনুলের ২১ বলে ১০ রানের জুটি ‘ঘুরে দাঁড়ানোর’ আশা জাগাতে না জাগাতেই শেষ! ফার্নান্দোর আড়াআড়ি হয়ে আসা বলটা খেলবেন কি ছাড়বেন, সিদ্ধান্ত নিতে নিতেই ব্যাটের কানায় লেগে বল উইকেটকিপার ডিকভেলার হাতে।

৯ বল আর ৮ রান পর আবার উইকেট। রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে আসা রাজিতার বলে যেভাবে বোল্ড হলেন, সেটি রাতে দুঃস্বপ্ন দেখানোর কথা নাজমুলকে। ড্রাইভ করতে গিয়েছিলেন, বল ব্যাটে তো লাগলই না, ব্যাট-প্যাডের ফাঁক গলে স্টাম্পে। সর্বশেষ ৮ ইনিংসে চতুর্থবারের মতো এক অঙ্কে আউট হলেন নাজমুল।

সাকিব আল হাসান এলেন, এক বল পরই আবার ড্রেসিংরুমে ফিরলেন। আবারও রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে রাজিতা, তাঁর বলের সুইংয়ে পরাস্ত সাকিব। এলবিডব্লু। হ্যাটট্রিকের সামনে রাজিতা।

লিটন এসে ওভারের শেষ বলটা ঠেকিয়ে হ্যাটট্রিক আর হতে দিলেন না। লিটন আর মুশফিকের জুটিতে এ পর্যন্ত ইনিংসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় উইকেট না হারানোর ‘কীর্তি’ও হয়ে গেছে বাংলাদেশের। জুটিতে ৮ রান হয়ে গেছে।

রাজিতা আর ফার্নান্দো যেভাবে উইকেট তুলে নিচ্ছিলেন, টুইটারে শ্রীলঙ্কান এক ক্রিকেটভক্ত লিখলেন, ‘ম্যাচটা বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কার নয়। রাজিতা বনাম ফার্নান্দোর—কে বেশি উইকেট নিতে পারে সেটির।’

তা বটে!

 

আজসারাবেলা/সংবাদ/জাই/খেলাধুলা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here