নেপালে আস্থা ভোটে হারলেন প্রধানমন্ত্রী অলি

0
54

সারাবেলা রিপোর্ট: নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি পার্লামেন্টে আস্থা ভোটে হেরে গেছেন। পার্লামেন্টের স্পিকার একথা জানিয়েছেন।

এর মধ্য দিয়ে অলি সরকারের পতন হল। সেইসঙ্গে করোনাভাইরাস সংক্রমণের উদ্বেগজনক নতুন ঢেউয়ের এই সময়ে দেশটি রাজনৈতিক বিশৃঙ্খলায় পড়ল।

পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে সোমবার এক বিশেষ অধিবেশনে এই আস্থা ভোট হয়।

২৭৫ আসনের এই পরিষদে উপস্থিত ছিলেন ২৩২ জন আইনপ্রণেতা। ওলি’র পক্ষে ভোট দিয়েছেন ৯৩ জন। আর বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ১২৪ জন। ১৫ জন ভোটদানে বিরত থাকেন।

প্রধানমন্ত্রী অলির আস্থা ভোটে জয় পেতে ১৩৬ ভোট প্রয়োজন ছিল। ভোট গণনার পর স্পিকার অগ্নি সাপকোতা বলেন, “প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি যে আস্থা ভোট চেয়েছিলেন তা প্রত্যাখ্যাত হয়েছে।”

নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভান্ডারি সোমবারই নতুন একটি সংখ্যাগরিষ্ঠ সরকার গঠনের জন্য দলগুলোকে আহ্বান জানিয়েছেন।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী পুষ্পকুমার দাহল ওরফে প্রচণ্ডের নেতৃত্বাধীন নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি (মাওবাদী) সমর্থন প্রত্যাহার করায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছিল অলির সরকার।

একারণে অলিকে সংসদের নিম্নকক্ষে আস্থা ভোটে যেতে হয়েছে। এতে হারের ফলে তার বছর তিনেকের সরকারের পতন হল।

নেপালের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির অভ্যন্তরীন কোন্দলের জেরে গতবছর ২০ ডিসেম্বর অলি রাষ্ট্রপতিকে পার্লামেন্ট বিলুপ্ত ঘোষণার আহ্বান জানিয়েছিলেন এবং

রাষ্ট্রপতি তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে আগাম নির্বাচন ঘোষণা করলে রাজনৈতিক সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছিল।

নেপালে করোনাভাইরাসের ঝুঁকিকে খাটো করে দেখার জন্য বিরোধীদলগুলোর পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও অলির বিরুদ্ধে বিস্তর সমালোচনা আছে।

আজসারাবেলা/সংবাদ/মাখ/আন্তর্জাতিক

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here