রাজনীতিতে ফিরলেন সাবেক জামায়াত নেতা ব্যারিস্টার রাজ্জাক

0
30

সারাবেলা রিপোর্ট: আমার বাংলাদেশ (এবি) পার্টির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে যোগ দিয়েছেন জামায়াতে ইসলামীর সাবেক সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাক।

রোববার (২ মে) দলটির প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সাবেক জামায়াত নেতার যোগদানের বিষয়টি জানানো হয়।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে নেতিবাচক ভূমিকার জন্য ক্ষমা চাওয়া এবং দল বিলুপ্তির পরামর্শ দিয়ে ২০১৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি জামায়াত থেকে পদত্যাগ করেন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক। এরপর তিনি কোনো দলের রাজনীতিতে সরাসরি যুক্ত ছিলেন না। বর্তমানে তিনি যুক্তরাজ্যের লন্ডনে আবস্থান করছেন।

এবি পার্টির সদস্য সচিব ও সাবেক জামায়াত নেতা মজিবুর রহমান মঞ্জু জানান, ব্যারিস্টার রাজ্জাককে পার্টির প্রধান উপদেষ্টা করা হয়েছে। আজ থেকে তিনি এবি পার্টির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করবেন।

রোববার ভার্চুয়ালি লন্ডন থেকে এবি পার্টির সংবাদ সম্মেলনে যুক্ত হন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক। নিজের বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের জন্য সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক সুবিচারের যে প্রতিশ্রুতি স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রে দেওয়া হয়েছে, জনগণের জন্য তা নিশ্চিত করার অঙ্গীকারের মাধ্যমে এবি পার্টির যাত্রা শুরু। বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের ধর্ম ইসলামে এই তিনটি অধিকারের সম্পূর্ণ নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে।

এবি পার্টির সংবাদ সম্মেলনে যুক্ত হয়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, এবি পার্টি গত এক বছর লাগাতার কাজ করেছে। তারা একটি কল্যাণরাষ্ট্র গড়ে তোলার জন্য চেষ্টা করছে।

গণফোরামের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অর্থনীতিবিদ ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, এবি পার্টির বছর পূর্তি দেশের জন্য খবুই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। বিগত পঞ্চাশ বছরে যে রাজনীতির ধারা দেখা গেছে, এতে জনগণ অনেকটা আস্থা হারিয়ে ফেলেছে। এই নতুন পার্টির আগমনে এ ঘাটতি পূরণ হবে। বর্তমান সরকারের অধীনে গণতান্ত্রিক সংস্কৃতির অবক্ষয় হয়েছে। উদার ও গণতান্ত্রিক একটি কালচার বাংলাদেশে ফেরত আনতে হবে।

এবি পার্টির প্রতিষ্ঠার এক বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, রাষ্ট্র বিজ্ঞানী ড. দিলারা চৌধুরী, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মোহাম্মদ ইব্রাহিম, সাবেক এমপি নিলুফার চৌধুরী মনি, সাবেক উপমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য গোলাম সরোয়ার মিলন, লেখক ও কলামিস্ট শ্রী গৌতম দাস, ধর্মীয় ব্যাক্তিত্ব মাওলানা ড. মো. নজরুল ইসলাম আল মারুফ, বৌদ্ধধর্মীয় গুরু ও শিক্ষাবিদ ড. সুকোমল বড়ুয়ার ধারণ করা বক্তব্য প্রচার করা হয়।

এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জুর সঞ্চালনায় এ সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন এবি পার্টির আহ্বায়ক এএফএম সোলায়মান চৌধুরী, যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক ডা. মেজর (অব.) আব্দুল ওহাব মিনার, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম, যুগ্ম সদস্য সচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ, ব্যারিস্টার যুবায়ের আহমেদ ভূঁইয়া, বিএম নাজমুল হক, সহকারী সদস্য সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা প্রমুখ।

২০২০ সালের ২ মে যাত্রা শুরু করে এবি পার্টি। দলটির উদ্যোক্তারা বেশিরভাগই জামায়াতে ইসলামীর সাবেক নেতাকর্মী।

আজসারাবেলা/সংবাদ/রই/রাজনীতি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here