ইংলিশ ক্রিকেটার মইনকে আলীকে নিয়ে তসলিমার নাসরিনের বিতর্কিত মন্তব্য

0
48
ইংলিশ ক্রিকেটার মইনকে আলীকে নিয়ে তসলিমার নাসরিনের বিতর্কিত মন্তব্য

সারাবেলা রিপোর্ট: ক্রিকেটার না হলে মইন আলি ইসলামিক স্টেটের সদস্য হতেন-তসলিমা নাসরিনের এই বিতর্কিত মন্তব্য ঘিরে চলছে সমালোচনা। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ইংলিশ অফ স্পিনিং অলরাউন্ডারের সতীর্থরা।

মদ প্রস্তুতকারক কোনো প্রতিষ্ঠানের লোগো নিজের জার্সিতে ব্যবহার করেন না মইন। তার এবারের আইপিএল দল চেন্নাই সুপার কিংসের জার্সিতে আছে তেমন একটি লোগো। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, ওই প্রতিষ্ঠানের লোগো নিজের জার্সিতে না রাখার অনুরোধ করেছেন তিনি। পরে অবশ্য ফ্র্যাঞ্চাইজির পক্ষ থেকে জানানো হয়, খবরটি সত্য নয়।

এসবের মাঝেই সোমবার মইনকে নিয়ে বিতর্কিত ওই টুইট করেন তসলিমা। যেখানে তিনি লিখেন, “যদি মইন আলি ক্রিকেটে না আসত, তিনি সম্ভবত সিরিয়ায় যেতেন (মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক জঙ্গিদল ইসলামিক স্টেট) আইএসআইএসে যোগ দিতে।”

তসলিমার এমন মন্তব্য স্বাভাবিকভাবেই ভালোভাবে নেননি ইংলিশ ক্রিকেটাররা। ক্ষোভ ঝেড়েছেন সাকিব মাহমুদ, বেন ডাকেট, স্যাম বিলিংসরা। তসলিমাকে উদ্দেশ করে পেসার জফ্রা আর্চার পরদিন লেখেন, “আপনি কি ঠিক আছেন? আমার তো মনে হয় না।”

শুধু ইংলিশ ক্রিকেটাররা নন, ১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ ত্যাগ করা তসলিমার এই টুইটের সমালোচনা করেছেন অনেকে। পরে অবশ্য টুইটটি মুছে দেওয়া হয়েছে। এই লেখিকা মঙ্গলবার দেন আগের টুইটের ব্যাখ্যা।

“নিন্দুকেরা ভালো করেই জানে, মইন আলিকে নিয়ে আমার টুইটটি ছিল ব্যঙ্গাত্মক। কিন্তু আমাকে হেনস্তা করার জন্য এটাকে ইস্যু বানানো হয়েছে। কারণ, আমি চেষ্টা করি মুসলিম সমাজকে ধর্ম নিরপেক্ষ করতে এবং আমি ইসলামি ধর্মান্ধতার বিরোধী। মানবজাতির অন্যতম দুর্ভাগ্য হলো, নারীবাদী বামপন্থিরাও নারীবিদ্বেষী ইসলামিস্টদের সমর্থন করে।”

তবে এতেও সন্তুষ্ট হতে পারেননি আর্চার। তসলিমার এদিনের টুইটও রি-টুইট করে তিনি লেখেন, “ব্যঙ্গাত্মক? কেউ হাসছে না, এমনকি আপনি নিজেও না। অন্তত যেটা করতে পারেন সেটা হলো, টুইটটা মুছে ফেলতে পারেন।”

আজসারাবেলা/সংবাদ/মাখ/খেলাধুলা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here