১৫০ টাকা নতুন আলু

0
48

সারাবেলা ডেস্ক : এরই মধ্যে রাজধানীর কাঁচা বাজারগুলোতে উঠেছে শীতকালীন বিভিন্ন সবজি। সাজানো সবজিগুলো দেখতে বেশ ভালও লাগে কিন্তু বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। কিছুতেই দাম নিয়ন্ত্রণে আসছে না।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, পর্যাপ্ত নতুন আলু রয়েছে বাজারে। প্রতি কেজি নতুন আলুর দাম চাওয়া হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা আর পুরনো আলু বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা পর্যন্ত।

চীনা ও তুরস্কের পেঁয়াজের দাম ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি। পাকিস্তানি পেঁয়াজ ৫৫-৬৫ টাকা, প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ৯০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। আর গাছসহ এক কেজি পেঁয়াজের দাম চাওয়া হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা।

দেশি রসুন ১১০ থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে, চায়না রসুন ১০০ থেকে ১১০ টাকা কেজি দরে, আদা (কেরালা) ১২০ টাকা কেজি দরে, আদা (চায়না) ২৪০ থেকে ২৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে শীতের সবজিতে বাজার ভরা থাকলেও অধিকাংশের দাম অপরিবর্তিত। তবে দাম কমেছে শিম, বাঁধাকপি ও শসার। তবে অপরিবর্তিত রয়েছে আটা, ময়দা, চাল, ডাল, ভোজ্যতেল ও মসলার দামও।

ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। বিক্রেতারা বলছেন, বাজারে সবজির আগমন ঘটলেও পরিমাণে তা কম হওয়ায় দাম কমছে না। আর ক্রেতারা বলছেন, বাজারে এর আগেও কোনো সবজির ঘাটতি ছিল না। এখন শীতকালে বাড়তি সবজি যোগ হলেও দাম আগের মতোই রাখছেন বিক্রেতারা।

আগের মতোই প্রতি কেজি গাজর বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকায়, ঢেঁড়শ ৬০ থেকে ৮০ টাকায়, বেগুন ৭০ থেকে ১০০ টাকায়, পেঁপে ৪০ টাকায়, মিষ্টি কুমড়া ৩৫ থেকে ৪০ টাকায়, কচুর ছড়া ৫০ টাকায়, কচুর লতি ৫০ থেকে ৭০ টাকায়, বরবটি ৮০ থেকে ১০০ টাকায়, টমেটো ১২০ থেকে ১৩০ টাকায়, চিচিংগা ৫০ থেকে ৬০ টাকায়, ধুন্দল বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৭০ টাকায়, পটল ৭০ থেকে ৮০ টাকায়, করলা ৬০ থেকে ৮০ টাকায়, উচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকায়, প্রতি কেজি কাঁচা মরিচ ১৬০ থেকে ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রতি পিস বাঁধাকপি ৪০ থেকে ৫০ টাকায়, প্রতি হালি কাঁচা কলা ৪০ টাকায়, প্রতি পিস লাউ ৬০ থেকে ৭০ টাকায়, চাল (জালি) কুমড়া ৪০ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

শাকের দাম মোঠাপ্রতি কমেছে তিন থেকে পাঁচ টাকা। লাল শাক বিক্রি হচ্ছে ১২ থেকে ১৫ টাকায়, পালং শাক ২০ থেকে ২৫ টাকায়, ডাটা শাক ১৫ থেকে ২০ টাকায়, মূলা ১২ থেকে ১৫ টাকায়। বাজারে লাউ ও কুমড়া শাক বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকায়।

রাজধানীর মোহাম্মদপুর, হাতিরপুল, ফকিরাপুল, টিঅ্যান্ডটি বাজার, বাসাবো, খিলগাঁও, মালিবাগ, সেগুনবাগিচা, শান্তিনগর বাজার ঘুরে এসব চিত্র উঠে এসেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here