প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক পরিচয় দেওয়া প্রতারক গ্রেফতার

সারাবেলা রিপোর্ট: প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক পরিচয় দেওয়া প্রতারক ইল্লাম শাহরিয়ারকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। একইসঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাজে বাধা দেওয়ায় তাকে তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) গাজীপুর মহানগর শিমুলতলী মৌবাগ এলাকার বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে দিনভর ওই বাসাটি র‌্যাব সদস্যরা ঘিরে রেখে অভিযান চালায়। গ্রেফতার হওয়া আইটি ইঞ্জিনিয়ার শাহরিয়ার সাবেক এক সেনা কর্মকর্তার ছেলে। চাকুরি দেওয়া ও বিদেশ পাঠানোর নাম করে মানুষের কাছ থেকে নানাভাবে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে র‌্যাব সদস্যরা বাড়িটি ঘিরে ফেললে শাহরিয়ার বাসা থেকে বের না হয়ে দরজা আটকিয়ে রাখে। গাজীপুরের পোড়াবাড়ি র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনার প্রস্তুতি নেওয়া হলেও দরজা বন্ধ থাকায় প্রথমে তারা ভেতরে ঢুকতে পারেনি। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল ফেরদৌসের নেতৃত্বে অভিযান চালানো হয়।

র‌্যাব সূত্র জানায়, অভিযানের সময় তার বাসা থেকে নগদ ছয় লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলরের বাসার গ্যারেজ থেকে শাহরিয়ারের একটি হায়েস গাড়ি জব্দ করা হয়েছে। ওই গাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বিভিন্ন স্টিকার, মনোগ্রাম, দুটি খেলনা পিস্তল, এসএসএফ এর পোশাক, ওয়াকিটকি পাওয়া গেছে।

বাসায় অভিযান পরিচালনার সময় ভুক্তভোগী কয়েকজনের বক্তব্য নেওয়া হয়; যারা চাকরি নিয়ে বিদেশ যেতে লাখ টাকা দিয়েছে। ব্যাপক তল্লাশিও চালানো হয় বাসার বিভিন্ন কক্ষের আসবাবপত্রে। ঘটনার সময় আশপাশের বিপুল সংখ্যক মানুষ বাসার চারপাশে ভিড় জমায়। রাত সাড়ে ১০টায় অভিযান শেষ হলে শাহরিয়ারকে গ্রেফতার করে নিয়ে র‌্যাব সদস্যরা।

অভিযান শেষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল ফেরদৌস ও র‌্যাব কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, কাজে বাধা দেওয়ায় তাৎক্ষণিকভাবে তাকে তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য অভিযোগে থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হবে এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আজ সারাবেলা/সংবাদ/সিআ/সারাদেশ

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.