শোবিজে আতঙ্ক: জুয়ার আসর থেকে আটক নাগরিক টিভির প্রোগ্রাম হেড কামরুজ্জামান বাবু

জুয়া খেলারত অবস্থায় আটক হন কামরুজ্জামান বাবু। চিন্হিত লাল বৃত্তে। ছবি: সংগৃহীত

সারাবেলা রিপোর্ট: চলমান অভিযানের অংশ হিসেবে গতকাল রাজধানীর বিজয় নগরে সায়েম স্কাইভিউ টাওয়ারে অভিযান চালানো হয়। ভবনটির আট তলায় অবস্থিত বাংলাদেশ ফ্লিম ক্লাবে নিয়মিত বসতো জুয়ার আড্ডা। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট লোকজনের আনাগোনা এখানে। অনেক উঠতি মডেল, নায়িকারাও আসেন এখানে। অনেক অপ্রীতিকর, অসামাজিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগও দীর্ঘদিন ধরে শোনা যাচ্ছিল ক্লাবটির বিরুদ্ধে।

গতকাল রোববারের অভিযানে জুয়া খেলা চলাকালীন অবস্থায় আটক করা হয় নাগরিক টেলিভিশনের অনুষ্ঠান প্রধান ও বাচসাচ এর নব-নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক বিনোদন সাংবাদিক নেতা কামরুজ্জামান বাবুকে। তিনি নিয়মিতই এই ক্লাবে আসতেন এবং মদ ও জুয়ার আড্ডায় অংশ নিতেন।

এই বিষয়ে রমনা জোনের এডিসি, এইচ এম আজিমুল হক বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে আমরা খবর পাই এখানে জুয়া ও অন্যান্য অসামাজিক কার্যক্রম চলে এবং অভিযানে এই তথ্যের সত্যতাও মেলে।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হঠাৎ শক্ত অবস্থানে নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। বেরিয়ে আসছে অনেক অজানা চাঞ্চল্যকর তথ্য। ফেঁসে যাচ্ছেন ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকা অনেকেই।
শোবিজে ভর করেছে আতঙ্ক। কখন কোন তারকার নাম প্রকাশ হয় সেই শংকায় ভুগছেন শোবিজের বাসিন্দারা।

জানা গেছে, ট্যুরিস্ট ভিসায় বাংলাদেশে এসে চীন ও নেপালের অন্তত ৪০০ প্রশিক্ষিত তরুণ-তরুণী ঢাকার বিভিন্ন ক্যাসিনোয় কাজ করতেন। কয়েকটি দলে ভাগ হয়ে তারা কাজ করতেন। কেউ রিসেপশনে, কেউ ইলেক্ট্রনিক জুয়ার বোর্ড অপারেটিংয়ে এবং কেউ নিয়োজিত ছিলেন ক্যাসিনো থেকে অর্থ পাচার কাজে।

ক্যাসিনোয় আসা জুয়াড়িদের মনোরঞ্জনের জন্য আনা সুন্দরীদের রাখা হতো রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার বিলাসবহুল ভবনে। তাদের আনা-নেয়া করা হতো কালো কাচঘেরা গাড়িতে।

ঢাকার ক্যাসিনোয় শুধু ভিনদেশি তরণ-তরুণীই নয়, পেটের দায়ে অথবা বিলাসী জীবন-যাপনের জন্য এই চক্রে জড়িয়ে পড়েছে দেশের শিক্ষিত তরুণীরাও। তাদের মধ্যে আছে উঠতি অনেক মডেল ও অভিনেত্রীও।

আজসারাবেলা/সংবাদ/রই/বিনোদন/রাজধানী/অপরাধ

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.