চার স্তরের ব্যবসায়ীদের ঋণ নিতে লাগবে না ‘মর্টগেজ’

সাংবাদিকদের বিফ্র করছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মাদ শফিউল আলম।

সারাবেলা রিপোর্ট: অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র, মাঝারি শিল্প এবং কুটির শিল্প জাতীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ব্যবসায়ীদের ঋণ গ্রহণে মর্টগেজের প্রয়োজন হবে না। ঋণ প্রাপ্তির প্রক্রিয়াকেও করা হবে সহজ এবং স্বল্প সুদে ঋণ প্রদানের নির্দেশনা দেওয়া হবে।

সোমবার (০৯ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মাদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এসব তথ্য দেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সংক্রান্ত ‘এসএমই নীতিমালা ২০১৯’ এর খসড়ার অনুমোদন দেওয়া হয়।

শফিউল আলম বলেন, তবে মর্টগেজ ফ্রি ঋণ পেতে এই নীতিমালার আওতায় সরকার এসএমই গ্রান্টি ফান্ড চালু করবে। এটা চালু হলে এই চার স্তরের ব্যবসায়ীদের মর্টগেজের প্রয়োজন হবে না। এটা আরও বেশি সহজিকরণ করা হবে। সহজ শর্তে এবং স্বল্প সুদে ঋণ প্রদানের নির্দেশনা দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, নীতিমালাটির কৌশলগত লক্ষ্যের মধ্যে নতুন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করার ক্ষেত্রে সহায়তা করা, অনলাইন ব্যবসা পদ্ধতি চালুর মাধ্যমে নতুন ব্যবসা চালুর প্রক্রিয়াকে সহজ করা। এছাড়াও ই-কমার্স, অনলাইন সাপোর্ট, আউটসোর্সিং ও আইটিবি থেকে আবেদনের মাধ্যমে এসএমইদের সহায়তা দেওয়া হবে।

এই নীতিমালার আওতায় নারী উদ্যোক্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। তাদেরকে ঋণ প্রদান, তহবিল গঠন, প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বৃদ্ধি, নারীদের উদ্বৃক্তকরণ এবং ব্যবসা কার্যক্রমে বাজার সংযোগের সুযোগ বৃদ্ধি করা হবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আগে এ সংক্রান্ত কোন নীতিমালা ছিল না। এটা করা হয়েছে জাতীয় শিল্পনীতির আলোকে। দেশের প্রায় ৭৮ লাখ অতি ক্ষুদ্র, মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তাদের জিডিপিতে অবদান হচ্ছে প্রায় ২৫ শতাংশ।

‘নতুন এ নীতিমালা করা হয়েছে ছয়টি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে। এর মধ্যে রয়েছে, যারা এসএমই’র আওতায় আসবে তাদের অর্থ প্রাপ্তির সুযোগ সামনে রাখা, প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনের সুযোগ, বাজারে প্রবেশের সুযোগ, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের সুযোগ, ব্যবসা সুবিধা, সেবার অগ্রাধিকার এবং তথ্যের অধিকার নিশ্চিতকরণ।’

এই নীতিমালার ফলে আরও দুটি ব্যবসা যোগ করা হয়েছে যেমন, অতিক্ষুদ্র শিল্প এবং কুটির শিল্প। নীতিমালায় কিছু নতুন বিষয় যোগ করা হয়েছে। বাস্তবায়ন কৌশলের মধ্যে ধারা ৪ এর ২ তে কৌশলগত অর্থায়ন সুবিধা প্রাপ্তিতে এসএমই খাতের সুযোগ বৃদ্ধি করা হয়েছে। এর জন্য কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যেমন, এসএমই খাতে ঋণ প্রবাহ বৃদ্ধির নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যোগ করেন শফিউল আলম।

আজসারাবেলা/সংবাদ/রই/অর্থনীতি

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.