অনিশ্চয়তায় ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সম্মেলন

সারাবেলা রিপোর্টঃ আবারও অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সম্মেলন। দীর্ঘ সময় পরও সম্মেলন না হওয়ায় ছাত্ররাজনীতিতে আগ্রহ কমে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন অনেক নেতা। একাধিক সিনিয়র নেতা অভিযোগ করেছেন দীর্ঘদিন ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করা, দীর্যদিন সম্মেলন না হওয়া, এভাবে চলতে থাকলে আগামী দিনের নেতৃত্ব তৈরি হওয়ার প্রক্রিয়া স্থবির হয়ে পড়বে।

চলতি বছরের এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে ঢাকা কলেজে ছাত্রলীগের সম্মেলন হওয়ার কথা থাকলেও কেন্দ্রীয় কমিটি পূর্ণাঙ্গ না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত আটকে যায় সেই সম্মেলন। তবে কবে নাগাদ সম্মেলন হবে তার সদুত্তর দিতে পারেনি ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কোনো নেতা-কর্মী।

সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী এমন খবর আসলে আবারো অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সম্মেলন। দীর্ঘ তিন বছর ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম চালাচ্ছে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ।

জানা যায়, ২৯ নভেম্বর ২০১৩ শুক্রবার রাতে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত হওয়ার ঘটনায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে ৩০ নভেম্বর ২০১৩ ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করা হয়। তখন ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন ফুয়াদ হাসান পল্লব ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন সাকিব হাসান সুইম। এঘটনায় সাধারণ সম্পাদকসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করা হয়।

এর দীর্ঘ ৩ বছর পর ২০১৬ সালের ১৭ নভেম্বর তিন মাসের জন্য নুর আলম ভূইয়া রাজুকে আহ্বায়ক করে একটি আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেয় ছাত্রলীগের তৎকালীন কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন।

এরপর ২০১৭ সালের ২২ জানুয়ারি দুই গ্রুপের সংঘর্ষের কারণে ঢাকা কলেজ শাখার আহ্বায়কসহ ১৯ নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। তিন মাসের সেই আহ্বায়ক কমিটি দিয়ে এখনও চলছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঢাকা কলেজ ইউনিট।

সম্মেলনের বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জামাল উদ্দিন মাহী বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে যেকোনো আন্দোলনে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ সবসময় সোচ্চার থাকে। পূর্ণাঙ্গ কমিটি একটি সংগঠনের প্রাণ। আমাদের প্রাণের দাবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক আমাদের একটি কমিটি উপহার দেবেন। ১৭৮ বছরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঢাকা কলেজ। আমরা চাই অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে সম্মেলনের মাধ্যমে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হোক। তবে সাবেক নেতারা বলছেন ছাত্রলীগের এমন গুরুত্বপূর্ণ ইউনিটের সম্মেলন দীর্ঘদিন বিলম্বিত হওয়া মোটেও কাম্য নয়।

এ বিষয়ে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ফুয়াদ হাসান পল্লব বলেন, ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিট। এই ইউনিটে দীর্ঘদিন সম্মেলন না হওয়া মোটেও কাম্য নয়। আমি চাই অচিরেই সম্মেলনের মাধ্যমে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি হোক। ছাত্রলীগের ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের জন্য ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সম্মেলন হওয়া দরকার।

তবে ছাত্রলীগের এমন গুরুত্বপূর্ণ ইউনিটে দীর্ঘদিন সম্মেলন না হওয়া ও কমিটি না থাকার বিষয়ে কেন্দ্রীয় কমিটির ভূমিকা নিয়ে আপনার মন্তব্য কী? এমন প্রশ্নের জবাবে বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন।

এ বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও তারা ধরেননি।

আজ সারাবেলা/সংবাদ/সাআ/রাজনীতি

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.